৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ,মধ্যম বাজেটের সেরা ৩ টি

ল্যাপটপ কেনার কথা ভাবছেন অথচ বাজেটও বেশী নাই,সেক্ষেত্রে ৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ বাছাই করা খুবই কঠিন। আমরা আজ ৩ টি মধ্যম বাজেটের ল্যাপটপ নিয়ে আলোচনা করবো যেগুলোর দাম ৩০ হাজার টাকার মধ্যে।

কম বেশী সব দামেই ল্যাপটপ পাওয়া যায় এটা সত্যি কিন্তু পছন্দসই কনফিগারেশন দেখে নিতে গেলে বাজেট অনেক বড় হয়ে যায়।

হাই কনফিগারেশন না হলেও মোটামুটি মধ্যম মানের ল্যাপটপ কিনতে গেলে ২৫/৩০ হাজার টাকা কিছুই না।

ল্যাপটপ

তাই অনেকে ২৫/৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ কিনতে গিয়ে দ্বিধাদ্বন্দে পড়ে যান কোনটা কিনবেন ঠিক বুঝে উঠতে পারেন না।

কনফিগারেশন দেখতে গেলে দামে কুলায় না,আবার দাম দেখলে কনফিগারেশন নিম্ন মানের হয়ে যায়,তাদের জন্যই আজকের এই পোষ্ট।

এপেল এর আইফোন-১২ এর ফিচার গুলো দেখে নিনঃ-

তো আসুন দেখে নেওয়া যাক ৩০ হাজার টাকার মধ্যে ৩ টি লাপটপের বিবরনঃ-

১। এইচপি ১৫ ডিএ০০২৪টিইউঃ-

বিশ্ব খ্যাত ল্যাপটপ নির্মাতা প্রতিষ্টান এইচপির ১৫ ডিএ০০২৪টিইউ ল্যাপটপটি পাবেন ২৮ হাজার টাকার মধ্যে।

৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ

ডায়াগনাল এইচডি এসভিএ ব্রাইটভিউ মাইক্রো এডজ ডব্লিউ এলইডি ব্যাকলিট ডিসপ্লের সাইজ ১৫.৬ ইঞ্চি।

এটি চলবে জেনুইন উইন্ডোজ ১০ দিয়ে।যার প্রসেসর হলো ইন্টেল পিকিউসি এন৫০০০ প্রসেসরটি ১.২-২.৭ গিগা হারটজ।

যার র‍্যাম হলো ৪ জিবি, ডিডিআর ৪।এটির স্টোরেজ ক্ষমতা হলো ৫০০ জিবি এইচডিডি,৫৪০০ আরপিএম সাটা।

এতে ইন্টেল ইউএইচডি গ্রাফিকস ৬০৫ জিপিইউ আছে এবং এইচপি ট্রুভিশন এইচডি ক্যামেরা আছে ওয়েবক্যাম হিসাবে।

এর ব্যাটারী হলো ৩ সেল, ৪১ ডব্লিউএইচ লিথিয়াম আয়ন। যা দীর্ঘ ক্ষন ধরে ল্যাপটপটি চলার নিশ্চয়তা দিয়ে থাকে।

ল্যাপটপটি সম্পর্কে আরোও জানতে ভিজিট করুন এইচপির ওয়েবসাইট

২। আসুস ই২০৩এমএএইচঃ-

মধ্যম বাজেটের কথা মাথায় রেখে ল্যাপটপ নির্মাতা প্রতিষ্টান আসুস বানিয়েছে তাদের আসুস ই২০৩এমএএইচ ল্যাপটপটি।

৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ

আমাদের দেশের বাজারে এটি মোটামুটি ২৯ হাজার টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে।

১১.৬ ইঞ্চি সাইজের ল্যাপটপটির ওজন মাত্র ৯৮০ গ্রাম। উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমে চলবে এটি।

এতে ইন্টেল পেন্টিয়াম সিলভার এন৫০০০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে।যার র‍্যাম হলো ৪ জিবি এলপিডিডিআর৪ ২৪০০ মেগা হারটজ।

এর স্টোরেজ ক্ষমতা হলো ৫০০ জিবি, ৫৪০০ আরপিএম এইচডিডি সাটা।

৩ সেল ৪২ ডব্লিউ পলিমার ব্যাটারী দিবে প্রায় ১০ ঘন্টার ব্যাক আপ।তাই এই ল্যাপটপটি নিয়ে ঘুরতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন।

অবশ্য এতে ওয়েবক্যাম হিসাবে ভিজিএ ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে।

বিস্তারিত আসুস এর সাইট থেকে জেনে নিতে পারেন।

৩। লেনোভো আইডিয়া প্যাড এস১৪৫ঃ-

ল্যাপটপের জগতে লেনোভো এক অন্যন্য নাম।এবার লেনোভো এনেছে মধ্যম বাজেটের একটি ল্যাপটপ।যার নাম হলো লেনোভো আইডিয়া প্যাড এস১৪৫।

৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ

২৬ হাজার টাকার মধ্যে এটি বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাবে।

৩৯.৬২ সেমি বা ১৫.৬ ইঞ্চির এফএইচডি টিএন এন্টি গ্লারি ডিসপ্লের ল্যাপটপটি দেখতে খুব সুন্দর।

এতে ব্যবহার করা হয়েছে ইন্টেল কোর আই-৩ ৭০২০ইউ প্রসেসর এবং রয়েছে ইন্টেল এইচডি গ্রাফিকস প্রসেসর।

আসুস আইডিয়া প্যাড এস১৪৫ এর র‍্যাম হলো ৪ জিবি পিসি৪ ১৭০০০ ডিডিআর৪ ২১৩৩ মেগা হারটজ।

আর এতে মেমোরী স্টোরেজ ক্ষমতা হলো ১ টিবি ৫৪০০। এর ইন্টিগ্রেডেড ৫ ডব্লিউএইচ ব্যাটারীতে মিলবে অনেক ক্ষন ধরে ব্যাক আপের নিশ্চয়তা।

০.৩ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা থাকছে এর ওয়েবক্যাম হিসাবে।

ল্যাপটপটির ওজন হলো ১.৮৫ গ্রাম।

লেনোভোর সাইট থেকে আরোও জানতে পারেন।

শেষকথাঃ-

মূলত একটা ল্যাপটপ কেনার সময় অনেক গুলো বিষয় মাথায় রাখতে হয়।যেমন,এর ফুল এইচডি ডিসপ্লে বা ব্যাটারী কার্যক্ষমতা অথবা এর মেমোরী স্টোরেজ ক্ষমতা ইত্যাদি।

সবদিক খেয়াল রেখে ৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ নির্বাচন করা একটু কঠিন ব্যাপারই বটে। সেই দিক থেকে উপরোক্ত মডেলের ল্যাপটপ গুলো আপনার চাহিদা মেটাতে সক্ষম হবে বলে মনে করি।

2 thoughts on “৩০ হাজার টাকার মধ্যে ল্যাপটপ,মধ্যম বাজেটের সেরা ৩ টি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।