ওয়েব সার্চ এ যে কয়টি বিষয়ে সার্চ করা বিপদজনক - বাংলা প্রযুক্তি ব্লগ

ওয়েব সার্চ এ যে কয়টি বিষয়ে সার্চ করা বিপদজনক

কারনে অকারনে আমরা গুগল সার্চ ব্যবহার করি।তাই আমাদের জেনে রাখা উচিত ওয়েব সার্চ এ যে কয়টি বিষয়ে সার্চ করা বিপদজনক।

অতি সম্প্রতি ঘটে যাওয়া কয়েকটি হ্যাকিং এর ঘটনা অনলাইন ভিত্তিক আর্থিক লেনদেন কারী প্রতিষ্টান গুলোর ভিত নাড়িয়ে দিয়েছে।

যেখানে এমন কিছু রাষ্ট্রীয় ওয়েব সাইটও হ্যাকারদের শিকারে পরিনত হয়েছে ,সেখানে সাধারন ব্যবহারকারীরা আরোও ঝুঁকির মধ্যে পড়ে আছে।

এই অবস্থায় সাধারন ব্যবহার কারীদের কিছু সাবধানতা অবলম্বন করাটা জরুরী।নচেত অনলাইনে আপনার টাকা বা ব্যক্তিগত তথ্য হাত বদল হওয়ার ঝুকি থেকে যায়।

গুগল সার্চের বিষয়ে আরোও বিস্তারিত জানতেঃ-

গুগল সার্চ এর ব্যবহারঃ-

যতই দিন যাচ্ছে ওয়েব সার্চ এর ব্যবহার বেড়েই চলেছে। কারনে অকারনে ওয়েব সার্চ থেকে তথ্য খুজে নেওয়া আসলেই খুব সহজ।

যেকোন অজানা বিষয়ে জানার জন্য ওয়েব সার্চের সুবিধাটা খুবই কাজের।তবে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন হলো গুগল সার্চ যার কোন বিকল্প নেই।

অজানা বিষয়ের নাড়ি নক্ষত্র আপনার সামনে হাজির করে দিবে গুগল।সেখান থেকেই আপনার জানার পিপাসা মেটাতে পারবেন।

কোন কোম্পানীর কাস্টমার কেয়ারের নাম্বার খুজতে বা কোন রান্নার রেসিপি খুজতে আমরা সচরাচর গুগল সার্চে ভরসা করে থাকি।

ওয়েব সার্চ

কিন্তু এমন কিছু বিষয় বিষয় আছে যেগুলো সার্চ করলে আপনি বিপদের সম্মুখীন হতে পারেন।আপনি জানতেও পারবেন না কত সহজে আপনার টাকা এবং তথ্য আপনি প্রতারকদের হাতে তুলে দিলেন।

সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করার ফলে যে ফলাফল গুলো দেখায় সেগুলো কিন্তু গুগলের নিজস্ব কনটেন্ট নয়,আপনার সার্চ করা কিওয়ারড অনুযায়ী সার্চ করে ওয়েব থেকে তারা সর্বোত্তম ফলাফল গুলো আপনার সামনে হাজির করে।তাছাড়া সার্চ রেজাল্ট পাতায় কিন্ত বিজ্ঞাপনও থাকে।

সুতরাং সার্চ রেজাল্টের পাতায় যা যা থাকবে সবকিছুতে চোখ বুজে বিশ্বাস করা ঠিক হবে না।

তাই সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করার আগে অবশ্যই একবার ভেবে দেখবেন যে আপনি কোথায় কি সার্চ করছেন।

তো আসুন দেখে নেওয়া যাক কোন কোন বিষয়ে সার্চ করলে সেটা আপনার জন্য বিপদজনক হতে পারে।

১। ইন্টারনেট ব্যাংকিং সাইট খোজাঃ-

আপনি অনলাইনে ব্যাংকিং সেবা গ্রহন করছেন।কিন্তু আপনার ব্যাংকের পোর্টালের সঠিক ইউ আর এল জানেন না,তাই আপনি গুগলে গিয়ে ব্যাংকের নাম দিয়ে সার্চ করে আপনার একাউন্টে লগইন করে লেনদেন করতে চাইছেন।

এটি আপনার জন্য সর্বনাশের কারন হয়ে দাঁড়াতে পারে। ইন্টারনেটে অসংখ্যা ফিশিং সাইট থাকে।যেগুলো দেখতে হুবুহু আপনার সেই ব্যাংকের সাইটের মতোই।

ওয়েব সার্চ

সার্চ রেজাল্ট পেজ থেকে ভুল করে এরকম কোন সাইটে ঢুকে যদি আপনি ইউজার আইডি,পাসওয়ারড দিয়ে লগ ইন করে ফেলার মানে হলো আপনার টাকা আপনি নিজেই অন্যের হাতে তুলে দিলেন।

এক্ষেত্রে একমাত্র করনীয় হলো,আপনার ব্যাংক পোর্টালের সঠিক ইউ আর এল জেনে নেওয়া এবং এড্রেস বারে সেটি টাইপ করে সেই সাইটে প্রবেশ করা।

২। ডাউনলোড করার জন্য এপস খোজাঃ-

আপনি প্রয়োজনীয় কোন এপস ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন,কিন্তু সেটা খুজতে আপনি গুগলে সার্চ করলেন এবং সেখানকার লিংক থেকে এপসটি ডাউনলোড ও ইনস্টল করলেন।

আপনি নিশ্চিত ঝুঁকির মধ্যে পড়ে গেলেন।কেননা এভাবে অজানা সোর্স থেকে ডাউনলোড করা এপস এর সাথে ম্যালওয়ার ঢুকে পড়তে পারে।

পরবরতীতে ম্যালওয়ার আপনার সমস্ত তথ্য প্রতারকদের হাতে তুলে দিবে।

৩। সরকারী ওয়েবসাইট খোজাঃ-

হ্যাকারদের প্রথম টার্গেট থাকে সরকারী ওয়েবসাইট গুলো।যেখানে মানুষ লাইসেন্স বা ডেথ সার্টিফিকেট বানাতে আসে।

আর এখান থেকে মানুষের তথ্যগুলো খুব সহজেই হাতিয়ে নিতে পারে তারা। এ কারনেই সরকারী ওয়েব সাইট খুজতে ওয়েব সার্চ ব্যবহার করবেন না।

সঠিক ইউ আর এল জেনে নিয়ে সেটা ব্রাউজারের এড্রেস বারে টাইপ করে সাইটে ঢুকুন।

৪। ইকমার্স ওয়েবসাইট খোজাঃ-

অনলাইনে কেনাকাটার জন্য অনেকে ওয়েব সার্চে গিয়ে অনলাইন ষ্টোরের ঠিকানা খুজে থাকে। এভাবে প্রতারিত হওয়ার ঝুকি থাকে।

ওয়েব সার্চ

তাই কেনাকাটা বা আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত সাইট গুলোর সঠিক ইউ আর এল জেনে তার মাধ্যেমেই ঢোকা উচিত।

নচেত প্রতারিত হতে পারেন।

৫। রোগের ওষুধ খোজাঃ-

অনেকে সামান্য অসুখ বিসুখে ওয়েব বা গুগল সার্চে গিয়ে রোগের লক্ষন লিখে ওষুধের নাম জানার চেষ্টা করে থাকেন,যা মোটেও উচিত নয়।

never search

এক্ষেত্রে আপনার বিপদ হতে পারে।কারন গুগল কিন্তু একটা সার্চ ইঞ্জিন ডাক্তার নয়।

৬। কাস্টমার কেয়ারের নাম্বার খোজাঃ-

যেকোন কোম্পানী বা সংস্থার হেল্প ডেস্ক নাম্বার বা কাস্টমার কেয়ার নাম্বার খোজার জন্য কখনোই ওয়েব সার্চ এর উপর ভরসা করা উচিত নয়।

এতে প্রতারিত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশী থাকে। কেননা সার্চ থেকে পাওয়া বেশীর ভাগ কাস্টমার কেয়ার নাম্বার গুলো ভুল থাকে।

বিশেষ উদ্দ্যেশ্যকে সামনে রেখে প্রতারক চক্র ভুল নাম্বার ওয়েবে দিয়ে রাখে যাতে মানুষ সহজেই তাদের ফাদে পা দেয়।

শেষকথাঃ-

ডিজিটাল যুগের ডিজিটাল প্রতারক রা ওয়েবে এমন ভাবে ফাদ ফেলে রাখে যাতে সাধারন ব্যবহার কারীরা নিজের অজান্তেই সেই ফাদে পা দেয়।

বিশেষ করে ফিশিং সাইট গুলোর ব্যাপারে আরেকটু সতর্কতা অবলম্বন করাটা জরুরী। দেখতে হুবহু এক হলেও এগুলো আপনাকে সর্বস্বান্ত করে ছাড়বে।

এমন ভাবে এগুলো সাজানো হয় যে আপনি কল্পনাই করতে পারবেন না যে আপনি প্রতারকদের ফাদে পা দিচ্ছেন।

এজন্যেই ওয়েব সার্চ এর ক্ষেত্রে সচেতনতা জরুরী। নিজের তথ্য এবং অর্থ কে সুরক্ষিত রাখতে সতর্কতার সাথে ওয়েবে বিচরন করা দরকার।

 

 

 

One thought on “ওয়েব সার্চ এ যে কয়টি বিষয়ে সার্চ করা বিপদজনক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।